Wonderful Memories in Mukutmanipur

Review by: Suman Bannerjee

 

আগেও মুকুটমণিপুর এসেছি অনেক বার। সত্যি সুন্দর জায়গা। সুন্দর প্রাকৃতিক দৃশ্য বার বারই মন ভরিয়ে তুলেছে। ড্যামের উপর নেমে আসা সন্ধ্যাই বলুন বা সামনেই পরেশনাথ পাহাড়ের মন মুগ্ধ করা নিস্তব্ধতা, বনগোপালপুর রিজার্ভ ফরেস্টে পাখির কলতান ই বলুন বা অম্বিকানগরের ঐতিহ্য, সুন্দর বাঁশের ঘর সাজানোর উপাদান ই বলুন বা সন্ধ্যে বেলায় মাদলের ভেসে আসা আওয়াজ, এ সব ই এক ভ্রমণপপিপাসু মনের খোরাকের জন্য যথেষ্ট।

কিছু বছর আগেও দেখেছি এই জায়গাটাকে দিন দিন প্লাস্টিক, থার্মোকলের পাতায় ভরে যেতে,কিন্তু এখন আবার পুরোনো রুপ ফিরে পেয়েছে মুকুটমণিপুর প্লাস্টিক ফ্রি জোন হওয়ায়। লজের বুকিং করতে আগে পিক সিজনে যে অসুবিধা হত সেটাও আজ নেই মুকুটমণিপুর টুরিজমের দৌলতে। সস্তায় সুন্দর থাকা খাওয়ার ব্যবস্থা পেলাম লজ গুলোয়। আর যোগাযোগ ব্যবস্থাও যথেষ্ট উন্নত। বাড়ির থেকে ঘন্টা দুয়েকের মধ্যেই যে এতো সুন্দর এক পর্যটন ক্ষেত্র দিন দিন আরো সুন্দর রুপে আমাদের সামনে উঠে আসছে আর ইন্টারনেটের জমানায় সমস্ত সুযোগ সুবিধা আমরা যে আজ একটা জায়গায় পাচ্ছি তার জন্য মুকুটমণিপুর টুরিজম কে বিশেষ ধন্যবাদজ্ঞাপন না করে পারলাম না। মুকুটমণিপুর আরো সুন্দর আরো সমৃদ্ধ হয়ে উঠুক প্রকৃতির কোলে এই কামনা করি।

প্রকৃতির কোলে কয়েকটা দিন কাটিয়ে যাবার জন্য অবশ্যই ভ্রমণ পিপাসুর উদ্দেশ্যে বলব আপনারাও আসুন, ভালো লাগবে।

ধন্যবাদ